চাঁপাইনবাবগঞ্জে কনকনে শীতের দাপট

<![CDATA[

চাঁপাইনবাবগঞ্জে গত দুদিন ধরে কনকনে শীতে মানুষের জীবন বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছে। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল থেকেই চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ছিল ঘন কুয়াশার আবরণে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বুধবার সকাল ৬টাই তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে কনকনে শীত আর হিমেল হাওয়ার দাপটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে নিম্নআয়ের মানুষ। তীব্র শীতের কারণে সকাল সকাল মানুষ বাজারমুখী না হওয়ায় দোকানপাট খুলছে দেরিতে। আজ সকালে জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, মহাসড়কে কুয়াশার দাপটে হেডলাইট জ্বালিয়ে যান চলাচল করছে।

মরুফ আলী নামের এক অটোচালক বলেন, ‘গত তিন দিন ধরে হিমেল হাওয়ার কারণে সারাদিনই ঠান্ডা অনুভূত হয়। এই ঠান্ডায় চলা ফেরা করতে খুব কষ্ট হয়। তাছাড়া কুয়াশার কারণে রাস্তাঘাটে হেডলাইট জ্বালিয়ে গাড়ি চালাতে হচ্ছে। চলন্ত গাড়িতে বাতাস বেশি লাগায় হাত-পাও কাঁপছে।’

তৌহিদ নামের এক মুদি দোকানি বলেন, ‘আজ সকালে ঢাকা থেকে কিছু মাল আসবে তাই একটু সকাল সকাল দোকান খুলেছি, কিন্তু কোনো বিক্রি নেই। কারণ খুব দরকার ছাড়া সকাল সকাল মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না।’

আরও পড়ুন: ফের বৃষ্টির আশঙ্কা, আবারও নামতে পারে শীত

রোমান নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘গত তিন দিন থেকে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। এখন ৯টা বাজে, তাও কুয়াশার কারণে এক হাত সামনে কী আছে, দেখা যাচ্ছে না।’

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালে প্রায় প্রতিদিনই ঠান্ডাজনিত রোগী ভর্তি হচ্ছে।

জেলা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মাসুদ পারভেজ বলেন, ‘রোটা ভাইরাসের কারণে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই।’

গত এক সপ্তাহে ঠান্ডাজনিত রোগে  হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ২৮০ জন। বর্তমানে ডায়রিয়া দুই ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৪৮ জন রোগী। তাদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু।

]]>

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button