সিসি ক্যামেরার ফুটেজ কি আলভেসের বিপক্ষে যাবে?

<![CDATA[

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ব্রাজিল তারকা দানি আলভেসের মুক্তি হয়তো সহসাই মিলছে না। এবার সিসি ক্যামেরার ফুটেজও তার বিপক্ষে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বার্সেলোনায় ঘটে যাওয়া সেই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ তদন্ত করেছে পুলিশ। সেখানে ১৫ মিনিটের বেশি সময়ে আলভেস ও ভুক্তভোগীর বাথরুমে থাকার সত্যতা মিলেছে। খবর স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা।

গত বছরের ডিসেম্বরে শাশুড়ির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নিতে আলভেস মেক্সিকো থেকে স্পেনের বার্সেলোনায় যান। সেখানে অবস্থানকালে ৩০ ডিসেম্বর একটি নাইট ক্লাবে গিয়ে ২৩ বছর বয়সী এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে আলভেসের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ২০ জানুয়ারি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আলভেসকে গ্রেফতার করে বার্সেলোনা পুলিশ। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন: শাশুড়ির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় গিয়ে ধর্ষণ করেছিলেন আলভেস?

স্প্যানিশ সংবাদপত্র এল পেরিওডিকোর খবরে বলা হয়েছে, নাইট ক্লাবের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ থেকে অনুমান করা হচ্ছে, আলভেস এবং ভুক্তভোগী নারী ১৫ মিনিটের বেশি সময় বাথরুমে ছিলেন। এ বিষয়ে তদন্তের অংশ হিসেবে পুলিশ বিশ্লেষণ করছে সবকিছু। 

মার্কা মালয়েশিয়ান টিভি-৩-এর বরাত দিয়ে আরেক খবরে জানিয়েছে, আদালতে আলভেস তিনটি বিষয়ে কথা বলেন। প্রথমত, যৌন হয়রানির অভিযোগ আনা তরুণীকে তিনি চেনেন না। দ্বিতীয়ত, ওই তরুণীকে আলভেস দেখেছেন, কিন্তু সে সময় তার সঙ্গে কিছুই ঘটেনি। তৃতীয়ত, ওই তরুণী নিজে থেকে এসে আলভেসের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন।

আরও পড়ুন: সাতসকালে আর্জেন্টিনাকে হারাল ব্রাজিল

আলভেসের এমন কথা শুনে যে কারও বিব্রত হওয়ারই কথা। বাস্তবেও সেটিই ঘটে। আলভেসের বলা কথাগুলো শুনে জজ তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। গত ২০ জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত বার্সেলোনা থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সান্ট এস্টিভের একটি কারাগারের অ্যাডমিশন বিভাগে রয়েছেন দানি আলভেস। 

]]>

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button