২০২৮ অলিম্পিকে ফিরছে ক্রিকেট!

<![CDATA[

অলিম্পিক গেমসের ইতিহাসে মাত্র একবারই ক্রিকেট ইভেন্ট হিসেবে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯০০ সালের সেই অলিম্পিকের পর থেকেই ক্রিকেট ব্রাত্য বিশ্বের বৃহত্তম ক্রীড়া আসরে। তবে, আইসিসি ক্রিকেটকে অলিম্পিক ইভেন্ট হিসেবে ফের প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করে যাচ্ছে। ২০২৮ সালে হতে যাওয়া লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকেই ক্রিকেটকে অন্তর্ভূক্ত করার জন্য আয়োজকদের কাছে প্রস্তাব দিয়েছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে অনুষ্ঠিত হবে ২০২৮ এর অলিম্পিকের আসর। প্রতি চার বছর অন্তর আয়োজিত এই প্রতিযোগিতায় ক্রিকেটকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) কাছে প্রস্তাব দিয়েছে আইসিসি। প্রতিযোগিতায় ছেলে ও মেয়েদের জন্য দুটো ইভেন্ট চায় ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

 

তবে, ইভেন্ট হিসেবে ক্রিকেট থাকবে কি না, সে বিষয়টি এখনো সম্পূর্ণ অনিশ্চিত। নতুন খেলা অন্তর্ভুক্তকরণের বিষয়ে মার্চে সভায় বসবে লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকের আয়োজক কমিটি। আর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানতে অপেক্ষা করতে হবে অক্টোবর পর্যন্ত। অক্টোবরে আন্তর্জাতিক আইওসির সভায় হবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। সে সভাটি অনুষ্ঠিত হবে ভারতের মুম্বাইয়ে।

আরও পড়ুন:জুনে অনুষ্ঠিত হতে পারে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল!

ক্রিকেটকে অলিম্পিকে অন্তর্ভূক্তকরণের বিষয়ে এরইমধ্যে একটি কমিটি গঠন করেছে আইসিসি। আইসিসি চেয়ারম্যান গ্রেগ বার্কলে ও বিসিসিআই সচিব জয় শাহ ছাড়াও সে কমিটিতে আছেন স্বতন্ত্র পরিচালক ইন্দ্রা নুয়ি এবং যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেটের সাবেক প্রেসিডেন্ট পরাগ মারাঠে।

ইএসপিএন-ক্রিকইনফো জানিয়েছে, ছেলে ও মেয়ে উভয় বিভাগে ছয় দলের ইভেন্ট প্রস্তাব করলেও আইসিসি এখনো টুর্নামেন্টের কাঠামো চূড়ান্ত করেনি। তবে প্রস্তাব গৃহীত হলে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ছয় দল সুযোগ পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ছাড়াও ক্রিকেটে টি-টেন ও সিক্স -এ- সাইড ফরম্যাটের প্রচলন থাকলেও আয়োজক কমিটির পরামর্শে টি-টোয়েন্টিকে বেছে নেওয় হয়েছে ইভেন্ট হিসেবে। লস অ্যাঞ্জেলস অলিম্পিক কমিটি আইসিসিকে এমন একটি ফরম্যাট প্রস্তাব করতে বলেছিল, যেটা বিশ্বকাপে খেলা হয়।

আসরের সময় স্বল্পতার কথা মাথায় রেখে তাই আইওসি ও লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিক কমিটির পরামর্শে টি-টোয়েন্টিকেই বেছে নেয়া হয়েছে। আর ছয়টি দল প্রস্তাব করা হয়েছে খরচ কমানোর বিষয়টি মাথায় রেখে।

আরও পড়ুন:এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ জিতল ভারত

এদিকে, আইওসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে অলিম্পিকে অ্যাথলেটের সংখ্যা কমিয়ে আনতে। ২০২৪ এর প্যারিস অলিম্পিকে মোট অ্যাথলেটের সংখ্যা হবে ১০ হাজার ৫০০ এর ভেতর, যা সবশেষ টোকিও অলিম্পিকে ছিল ১১ হাজার ৩০০।

১৯০০ সালে প্যারিসে অনুষ্ঠিত অলিম্পিক আসরে প্রথম ও শেষবারের মতো ক্রিকেটকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। সে আসরে এই ইভেন্টে শুধু ব্রিটেন ও ফ্রান্স অংশ নিয়েছিল। সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে ক্রিকেটকে অন্তর্ভুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ১৯৩২ ব্রিসবেন অলিম্পিকে ফের ক্রিকেট অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করা হবে। 

]]>

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button