১৮ বছর আত্মগোপনে থেকেও পার পেলেন না ওয়াহেদুল

<![CDATA[

রংপুরে হত্যা মামলায় দীর্ঘ ১৮ বছর আত্মগোপনে থাকা যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ওয়াহেদুল ইসলামকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রোববার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১৩-এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদ বশির আহমেদ।

শনিবার (২১ জানুয়ারি) রাতে ঢাকার তুরাগ উত্তরা মডেল টাউন এলাকায় র‍্যাব-১৩ ও র‍্যাব-১ যৌথ অভিযান চালিয়ে আসামি ওয়াহেদুল ইসলামকে গ্রেফতার করে। ওয়াহেদুল রংপুর মহানগরীর জলছত্র শেখটারী এলাকার মৃত তমিজ উদ্দিনের ছেলে।

আরও পড়ুন: ১৮ বছর পালিয়েও শেষ রক্ষা হলো না নিজামুলের

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব জানায়, ২০০৪ সালের ২৪ ডিসেম্বর সহযোগীরাসহ ওয়াহেদুল ইসলাম তার প্রেমিকাকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার পথে পরশুরাম থানার গজঘণ্টা ওমর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে মইনুল ইসলাম নামে প্রেমিকার পরিচিত এক ব্যক্তি তাদের বাধা দেন। এতে অভিযুক্তরা লাঠি ও রড দিয়ে মইনুলকে মারধর করে ফেলে রেখে যায়। স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে গেলে মইনুলের মৃত্যু হয়। পরে মইনুলের বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন। এদিকে হত্যার পরপরই ওয়াহেদুল ইসলাম বিভিন্ন স্থানে ভিন্ন পরিচয়ে আত্মগোপন করে।

র‍্যাব জানায়, ২০১৩ সালের ২৯ অক্টোবর অতিরিক্ত দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালত ওয়াহেদুল ইসলামকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

আরও পড়ুন: ৩২ বছর পালিয়েও মতিনের শেষ রক্ষা হলো না

এদিকে হত্যাকাণ্ডের পর থেকে আত্মগোপনে থাকার পর শনিবার র‍্যাব তথ্য প্রযুক্তি ও গোয়েন্দা অনুসন্ধানের মাধ্যমে আসামির অবস্থান নিশ্চিত হয়। র‍্যাব-১৩ ও র‍্যাব-১ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে ঢাকার তুরাগ থানার মডেল টাউন এলাকার ১২ নম্বর সেক্টরের ১ নম্বর ফ্ল্যাট থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

র‍্যাব-১৩-এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদ বশির আহমেদ জানান, গ্রেফতার ওয়াহেদুল ইসলাম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মইনুল ইসলামকে লাঠি ও রড দিয়ে বুকে আঘাত করে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। তাকে রংপুর জেলার পরশুরাম থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

]]>

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button