নদীতে ভাসমান মান্তা সম্প্রদায়ের পাশে স্বেচ্ছাসেবীরা

<![CDATA[

নৌকায় জন্ম নৌকায় মৃত্যু, নৌকায়ই বসবাস; এমন সম্প্রদায়ের নাম মানতা। পটুয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে ভাসমান জীবনযাপন করেন মানতারা।

সমাজ সভ্যতা থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন থাকা, তীব্র শীতে কাতর এই সম্প্রদয়ের পাশে দাঁড়িয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ধ্রুবতারা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন।

বৃহস্পতিবার ( ১৯ জানুয়ারি) সকালে চরমোন্তাজ স্লুইস গেট এলাকার ধ্রুবতারা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন পটুয়াখালী জেলা শাখার উদ্যোগে মান্তা পল্লীতে প্রত্যেক পরিবারের মধ্যে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে।

পটুয়াখালী জেলা শাখার সভাপতি ফারহানা মিশু টুম্পা জানান, ধ্রুবতারা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক অমীয় প্রাপন চক্রবর্তী অর্কর নির্দেশে সারা দেশের মতো পটুয়াখালীতেও কম্বল বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আরও পড়ুন : প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়ে মাদারীপুরে বদলে গেছে ছিন্নমূল মানুষের জীবন

কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ধ্রুবতারা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন রাঙ্গাবালী উপজেলা শাখার উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট জসীম উদ্দীন, পটুয়াখালী জেলা শাখার সভাপতি ফারহানা মিশু টুম্পা, সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ কাওসার ইবু, রাঙ্গাবালী ইয়ুথ সোসাইটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম সয়েম, সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম স্বরণ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

ধ্রুবতারা পটুয়াখালী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ কাওসার ইবু বলেন, অসহায় নারী ও শিশুসহ সারা দেশে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে ধ্রুবতারা। সোনারচরখ্যাত এই মান্তা সম্প্রদায়ের পাশে ধ্রুবতারা আছে এবং থাকবে। মান্তাদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও কিশোরীদের স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

এ সময় বড়বাইশদিয়ায় রাখাইন সম্প্রদায়ের উন্নয়নেও কাজ করবে বলে ঘোষণা দেন তিনি। 
 

]]>

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button