গ্যাস, বিদ্যুৎ, জ্বালানি তেলের দাম কোন দেশে কত?

<![CDATA[

করোনা মহামারির ধাক্কা সামলে বৈশ্বিক অর্থনীতি যখন কিছুটা ঘুরে দাঁড়াচ্ছিল, তখনই ইউক্রেনে শুরু হয় রাশিয়ার সামরিক অভিযান। মুহূর্তেই জ্বালানি সংকটে দিশেহারা হয়ে পড়ে বিশ্ব। আকাশচুম্বী হয়ে যায় তেল, গ্যাস, বিদ্যুতের দাম। সেই তুলনায় বাংলাদেশের পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে।

ইউরোপের পরিসংখ্যান বিষয়ক ওয়েবসাইট ইউরোপা, আন্তর্জাতিক জ্বালানি বিষয়ক ওয়েবসাইট গ্লোবাল পেট্রোল প্রাইজ এবং ভিজ্যুয়াল ক্যাপিটালিস্টের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। 

ওয়েবসাইটগুলো থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী এবার জেনে নেয়া যাক গ্যাস, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি তেল কিনতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষকে কত খরচ করতে হচ্ছে আর সেই তুলনায় জ্বালানির দাম বাংলাদেশে কেমন। 

গ্যাসের দাম

ইউরোপার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ২৪টি দেশের মধ্যে ২৩টি দেশেই গ্যাসের মূল্য বেড়েছে ব্যাপকহারে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউরোপে গ্যাসের দাম সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে এস্তোনিয়া, লিথুনিয়া ও বুলগেরিয়ায় যথাক্রমে ১৫৪, ১১০ ও ১০৮ শতাংশ।  

আরও পড়ুন : সংসদে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী /পাইপলাইনে ভারত থেকে তেল আমদানি শুরু জুনে
 

এভাবে গ্যাসের দাম দ্বিগুণের বেশি হয়ে যাওয়ায় ইউরোপে গ্যাসের ব্যবহার কমে গেছে। অন্যদিকে ভিজ্যুয়াল ক্যাপিটালিস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আকাশচুম্বী দামের কারণে গত বছরের অক্টোবরের পর থেকে ইউরোপে গ্যাসের চাহিদা কমে গেছে ২২ শতাংশ।

বিদ্যুতের দাম

এদিকে ভিজ্যুয়াল ক্যাপিটালিস্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী পৃথিবীর অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে বিদ্যুতের দাম অনেক কম। বর্তমানে বিশ্বে গড়ে প্রতি কিলোওয়াট/ঘণ্টা বিদ্যুতের দাম ১৪ সেন্ট অর্থাৎ ১৪ টাকার বেশি। বিশ্বের বর্তমানে বিদ্যুতের দাম সবচেয়ে বেশি ডেনমার্কে ৪৬ সেন্ট অর্থাৎ প্রতি ইউনিট ৪৬ টাকার বেশি।

আরও পড়ুন : ছয় দেশ থেকে ২১ লাখ টন জ্বালানি তেল কিনবে সরকার

অন্যদিকে সম্প্রতি বাংলাদেশে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পর গড় মূল্য দাঁড়িয়েছে ৭ টাকা ৪৮ পয়সা। প্রতিবেদন অনুসারে বিদ্যুতের দাম বেশি বিশ্বের এমন ১০০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের নাম নেই।

পেট্রোল বা গ্যাসোলিনের দাম

গ্যাসের দামের পাশাপাশি পেট্রোল বা গ্যাসোলিনের দামও ব্যাপক বেড়েছে। গ্লোবাল পেট্রোল প্রাইজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের ৯৩টি দেশে বাংলাদেশের চেয়ে বেশি দামে পেট্রোল বিক্রি হচ্ছে।

গ্লোবাল পেট্রোল প্রাইজের প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রতি গ্যালন (৩.৭৮ লিটার) পেট্রোল হংকংয়ে ১১.১ মার্কিন ডলার, সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকে ৮. ৬ মার্কিন ডলার, আইসল্যান্ডে ৮.৫ মার্কিন ডলার, নরওয়েতে ৮.১ মার্কিন ডলার, বার্বাডোজে ৭.৮ মার্কিন ডলার, ডেনমার্কে ৭.৭ মার্কিন ডলার, গ্রিসে ৭.৬ মার্কিন ডলার, নেদারল্যান্ডসে ৭.৬ মার্কিন ডলার, বেলজিয়ামে ৭.৪ মার্কিন ডলারে বিক্রি হচ্ছে।

আরও পড়ুন : বেসরকারি উদ্যোক্তাদের জ্বালানি তেল আমদানির সুযোগ দিতে চায় সরকার

উচ্চমূল্য তালিকায় এরপরেই রয়েছে যুক্তরাজ্য, এস্তোনিয়া, সুইজারল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, সুইডেন, সিসেলিস, ইসরাইল, জার্মানি, উরুগুয়ে ও উয়ালিস অ্যান্ড ফাতুনা। পেট্রোলের উচ্চমূল্যের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৮৮ নম্বরে; যেখানে প্রতি গ্যালন পেট্রোলের দাম ৪.৯ মার্কিন ডলার।

প্রসঙ্গত, গত ৬ আগস্ট মধ্যরাত থেকে দেশে পেট্রোলের দাম ৫১.১৬ শতাংশ বাড়িয়ে প্রতি লিটার ১৩০ টাকা এবং প্রতি লিটার অকটেনের দাম ৫১.৬৮ শতাংশ বাড়িয়ে ১৩৫ টাকা করা হয়। এর ২৩ দিন পর ২৯ আগস্ট পেট্রোল ও অকটেনের দাম লিটার প্রতি ৫ টাকা কমানোর ঘোষণা দেয় সরকার। ফলে এ দুটি তেল এখন লিটারপ্রতি যথাক্রমে ১২৫ ও ১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।  

অপরদিকে গ্লোবাল পেট্রোল প্রাইজের প্রতিবেদন অনুযায়ী, হংকংয়ে প্রতি লিটার পেট্রোল বিক্রি হচ্ছে ৩০৭ টাকায়।

 

]]>

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button